বিনোদন

অনেক কষ্টে বড় হয়েছি, খাবারটাও ঠিকমতো পাইনি বলে কাঁদলেন বর্ষা

সংগ্রামের জীবনের নানা কথা খোলামেলাভাবে শেয়ার করলেন চিত্রনায়িকা ও শিল্পপতি-অ’ভিনেতা অনন্ত জলিলের স্ত্রী আফিয়া নুসরাত বর্ষা।

নিজের আজকের অবস্থানটাকে যেমন তিনি উপভোগ করেন। আবার ঠিক তেমনি অতীতের দিনগু’লোকেও স্মর’’ণ করেন। সম্প্রতি একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানে অতিথি হয়ে নিজের জীবনের জানা অজানা অনেক গল্পই শোনালেন বর্ষা।

গুগল নিউজ (Google News) এ সর্বশেষ খবর পেতে ফলো করুন।
‘খোঁজ-দ্য সার্চ’ ছবিতে অ’ভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন বর্ষা। ইফতেখার চৌধুরী পরিচালিত এ ছবিতে চিত্রনায়ক অনন্ত জলিলের বিপরীতে অ’ভিনয় করেছেন তিনি। জুটি বেঁধে একাধিক ছবি উপহার দিয়েছেন তারা। এরপর প্রেম ও বিয়ে। বর্তমানে দুই সন্তান নিয়ে সুখী দাম্পত্য জীবন অনন্ত-বর্ষার।

জীবনের ফেলে আসা দিনগু’লো নিয়ে বর্ষা বলেন, ‘আমি খুব সাধারণ ঘরের মেয়ে ছিলাম। এমনও হয়েছে সকালে আনমনে স্কুলে চলে গিয়েছিলাম। আমা’র ঘরে খাবারও ছিল না যে আমি এটা খেয়ে যাব’। হঠাৎ করে স্কুলে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছিলাম। তারপর আমা’র টিচার আমাকে তার বাসায় নিয়ে গিয়ে ডিম দিয়ে খিচুড়ি খাইয়েছিলেন। তারপর আবার ক্লাসে আসি।’

এ সময় তার চোখের কোণায় পানি জমে যায়। খানিক থেমে তিনি আরও বলেন, ‘আমা’র ৮-১০ বছর পর্যন্ত অনেক ক’ষ্টে দিন কে’টেছে। খাবারটাও ঠিকমতো পাইনি। তারপর আলহাম’দুলিল্লাহ, আমা’র ফ্যা’’মিলি এটাকে ওভারকাম করতে পেয়েছে।’

ছোটবেলা থেকেই মানুষের ভালোবাসা অনেক বেশি পেতেন বলেন জানান বর্ষা। তার ভাষায়, ‘প্রাইমা’রি শেষ করে হাইস্কুলে যাওয়ার পরও টিচারদের ভালোবাসা পেয়েছি। বার্ষিক অনুষ্ঠানে নাটক করতে শিক্ষকরা আমাকে ছেলেদের চরিত্রগু’লো দিতেন। একবার চেয়ারম্যান চরিত্রে অ’ভিনয় করে কলম উপহার পেয়েছিলাম।’

সিরাজগঞ্জে বেড়ে ওঠা বর্ষা কী ছোটবেলা ফিরে পেতে চান? এমন প্রশ্নের উত্তরে তার জবাব, ‘সত্যি কথা বলতে কী, আমি আসলে ছোটবেলায় ফিরে যেতে চাই না।

কারণ অনেক ক’ষ্টে বড় হয়েছি। তবে ধানমন্ডি লেকে গিয়ে চটপটি-ফুসকা খাওয়া, নদীর ধারে বসা, বান্ধবীদের সঙ্গে গল্প করা খুব মিস করি। এখন চাইলেই এগু’লো করতে পারি না। আমা’র কাছে মনে হয়- ইশ, ওই দিনগু’লোতে যদি ফিরে যেতে পারতাম। তাহলে বান্ধবীদের অনেক ভালো ভালো খাওয়াতে পারতাম। হাহাহা।’

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!